Saturday, October 31, 2020

নারী আসামিকে সাজা দিয়ে বাড়িতে পাঠাল আদালত

জনপ্রিয়

সন্তানের পিতৃ পরিচয়ের দাবীতে দারে দারে ঘুরছে অন্তঃসত্তা তানিয়া

তার প্রশ্ন আমি এখন কী করব, আমি কি সন্তানের বাবার পরিচয় দিতে পারব না...

কোচিংয়ে আটকে রেখে ছাত্রীকে শিক্ষকের ধর্ষণ

সন্তান প্রসবের পর তাকে বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানায় তারেক ও তার পরিবার

ফুডপান্ডার মাধ্যমে কী খাচ্ছেন বাংলাদেশের অভিজাত পরিবারের সদস্যরা?

তবে আন্তর্জাতিক খাবার সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান ফুডপান্ডা ফুটপাতের দোকানের সাথে চুক্তি করে অস্বাস্থ্যকর খাবার পৌঁছে দেওয়ার বিষয়ে কোনো বক্তব্য দিতে নারাজ।

তরুণীকে অপহরণ করে রাতভর গণধর্ষণের অভিযোগ

ঐ পাঁচজন স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতার কাছের লোক বলে জানিয়েছে মেয়েটি...

ফেনী প্রতিনিধি

ফেনীতে মাদক মামলায় জরিমানাসহ এক বছরের কারাদণ্ড দিলেও সংশোধনের শর্তে এক নারী আসামিকে কারাগারের না বদলে তার বাড়িতে পাঠানোর আদেশ দিয়েছে আদালত।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ফেনীর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. জাকির হোসাইন এ রায় দেন।

রায়ে সাজাপ্রাপ্ত ওই আসামিকে আট শর্তে প্রবেশন সুবিধা দিয়ে সংশোধনের জন্য সুযোগ দেয় আদালত।

প্রবেশন (সংশোধন) সুবিধাসহ দণ্ডপ্রাপ্ত নাজমা খাতুন ফেনীর পরশুরাম উপজেলার মির্জানগর ইউপির ডিএম সাহেব নগরের ইদ্রিস আলীর স্ত্রী।

এর আগে গত ১৬ সেপ্টেম্বর এই আদালতে অপর এক মাদক মামলায় কারাদণ্ডপ্রাপ্ত এক আসামিকেও সংশোধনের আটটি শর্তে জামিন দেওয়া হয়েছিল।

ফেনী আদালতে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী (এপিপি) নিমাই লাল সূত্রধর জানান, ২০১৯ সালের ৮ জুলাই বিকালে নাজমাকে তার বাড়ির উঠানে মাদক বেচাকেনার সময় ২০ গ্রাম গাঁজাসহ গ্রেপ্তার করে সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিবি।

ওইদিন বিজিবির হাবিলদার মো. মজিবুর রহমান বাদী হয়ে পরশুরাম থানায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করেন।

ওই মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পরশুরাম থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোহাম্মদ জালাল উদ্দিন নাজমা খাতুনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

ওই বছরের ৫ ডিসেম্বর আসামির বিরুদ্ধে মাদক আইনের দুইটি ধারায় আদালত অভিযোগ গঠন করেন।

এপিপি আরো জানান, আদালত বিচারকার্জ শেষে আসামি নাজমা খাতুনকে এক বছরের কারাদণ্ড এবং এক হাজার টাকা জরিমানা করে। জরিমানা অনাদায়ে আরো ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ডাদেশ দেন বিচারক।

একই সাথে আসামি দোষ স্বীকার করে ক্ষমা চাওয়ায় ১৯৬০ সালের ‘দি প্রবেশন অব অপেন্ডারস অর্ডিন্যান্স’ অনুযায়ী ৫ ধারায় আট শর্তে পরশুরাম উপজেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের কর্মকর্তার অধীনে সংশোধনের জন্য তাকে প্রবেশন দেন বিচারক।

২০২১ সালের ১৪ অক্টোবর পর্যন্ত প্রবেশন (সংশোধন) প্রদানের এ আদেশ বদলবৎ থাকবে।

আদালতের দেওয়া শর্তগুলো হল, মাদক গ্রহণ-পরিবহন-বিক্রি না করা, মাদক বিরোধী জনমত গঠন, মানুষকে মুক্তিযুদ্ধ ও দেশপ্রেমে অনুপ্রাণিত করা, গাছ লাগানো, নিজের চার সন্তানকে লেখাপড়া শেখানো ও সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তোলা এবং প্রশিক্ষণ নিয়ে আত্মনির্ভর হওয়া।

প্রবেশনের আদেশে বলা হয়, দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি তার বাড়ির আঙ্গিনায় এবং সরকারি সড়কে ১০টি করে ২০টি গাছ লাগিয়ে প্রবেশন কর্মকর্তাকে লিখিত জানাবেন।

এ সময় আসামি প্রবেশনের শর্ত ঠিকঠাক পালন করেন কিনা তা প্রতি দুই মাস পরপর প্রবেশন কর্মকর্তা এবং পরশুরাম থানার ওসিকে তদারকি করতে বলেন বিচারক।

এর আগে গত ১৬ সেপ্টেম্বর একই আদালতে মাদক মামলায় দোষী সাব্যস্ত হয়ে এক বছরের কারাদণ্ড হলেও সংশোধনের উদ্দেশ্যে আটটি শর্তে জামিন পান এনায়েত পাটোয়ারী নামে আরেক ব্যক্তি।

তিনি ফুলগাজী উপজেলার আমজাদহাট ইউনিয়নের উত্তর তারাকুচা গ্রামের এরশাদ পাটোয়ারীর ছেলে। ফেনীর আদালতের অপরাধের ধরণ বিবেচনায় সেইটিই ছিল প্রথম প্রবেশন আদেশ।

- Advertisement -

আরও খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisement -

সর্বশেষ

এবার পুলিশ পরিদর্শকের নাক ফাটালেন এসআই!

এ ঘটনার বিচার না হলে উর্ধ্বতন ও অধস্তনদের মধ্যে চেইন অব কমান্ড ভেঙে পড়বে...

বগুড়ায় মেধাবী শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান

বগুড়ায় মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাসিক বৃত্তি প্রদান, কবিতা আবৃত্তি ও নাতে রাসুল প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে...

বরিশালে বিয়ের ছয় দিনের পর স্বর্নালংঙ্কার নিয়ে পালালেন নববধূ

চার মাস প্রেম করার পর গত ১১ অক্টোবর ওই গৃহবধূ তার প্রথম স্বামীকে তালাক দিয়ে নাছেরের সঙ্গে পালিয়ে যান...

শিবগঞ্জে পিরব ইউনিয়ন কৃষক লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন

শনিবার বিকেলে বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার পিরব ইউনিয়ন কৃষকলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে...

বগুড়ায় ছেলে হত্যার বিচার চেয়ে আতঙ্কে বাবা!

তার করা হত্যা মামলার স্বাক্ষীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা করা হয়েছে। ওই মামলা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত...