Saturday, October 31, 2020

বগুড়ায় দুর্গা পূজায় হচ্ছে না বিজয়া দশমীর র‍্যালী, আরতি

জনপ্রিয়

সন্তানের পিতৃ পরিচয়ের দাবীতে দারে দারে ঘুরছে অন্তঃসত্তা তানিয়া

তার প্রশ্ন আমি এখন কী করব, আমি কি সন্তানের বাবার পরিচয় দিতে পারব না...

কোচিংয়ে আটকে রেখে ছাত্রীকে শিক্ষকের ধর্ষণ

সন্তান প্রসবের পর তাকে বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানায় তারেক ও তার পরিবার

ফুডপান্ডার মাধ্যমে কী খাচ্ছেন বাংলাদেশের অভিজাত পরিবারের সদস্যরা?

তবে আন্তর্জাতিক খাবার সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান ফুডপান্ডা ফুটপাতের দোকানের সাথে চুক্তি করে অস্বাস্থ্যকর খাবার পৌঁছে দেওয়ার বিষয়ে কোনো বক্তব্য দিতে নারাজ।

তরুণীকে অপহরণ করে রাতভর গণধর্ষণের অভিযোগ

ঐ পাঁচজন স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতার কাছের লোক বলে জানিয়েছে মেয়েটি...

নিজস্ব প্রতিবেদক

এ বছর দুর্গা পূজায় হচ্ছে না বিজয়া দশমীর র‍্যালী, আরতির প্রতিযোগিতা। এমনকি অঞ্জলিও দিতে হবে কয়েক ভাগে। এরকমই নিয়ম করেছে বগুড়ার দুর্গা পূজা উদযাপন কমিটি। গুরুত্বপুর্ণ মন্ডপগুলিতে নেয়া হচ্ছে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা। হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা বলছেন, কোভিড ১৯ এর কারণে এই নিয়ম মেনে চলবেন তারা।

শারদীয় দুর্গা পূজার আর বেশি দেরি নেই। মহালয়া হয়েছে গেছে ১৭ সেপ্টেম্বর। সাধারণত মহালয়ার ৬ দিন পর পুজা শুরু হওয়ার কথা থাকলেও ধর্মীয় বিধি থাকায়, এবারে পূজা শুরু হবে ২১ অক্টোবর থেকে। বিভিন্ন মন্ডপে পুরোদমে চলছে পূজার প্রস্তুতি। প্রতিমার কারিগররা ব্যস্ত হাতের কাজের নিপুনতা প্রদর্শনে।

এ বছর উৎসব হচ্ছে না বগুড়ায়। ঈদের পর এবারে করোনার প্রভাব পড়েছে দুর্গা পূজাতেও। জেলা পূজা উদযাপন কমিটি প্রশাসনের সাথে দফায় দফায় বৈঠক করে নিয়েছে ২৬টি সিদ্ধান্ত। বাড়তি আলোকসজ্জা থেকে নিজেদের বিরত রাখছেন আয়োজকেরা। স্বাস্থ্যবিধি কঠোরভাবে মানার ক্ষেত্রে প্রতিটি কমিটিকে নির্দশনা দেয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের বগুড়া জেলা শাখার সভাপতি দিলীপ কুমার দেব জানান, এবছর আমরা কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে ২৬টি নির্দেশনা পেয়েছি। এর মধ্যে রয়েছে, এবছর আলোকসজ্জা যেটুকু না করলেই নয়, সেটুকুই করতে হবে। পূজার প্রয়োজনীয় বাজনা ছাড়া বাড়তি কোন ধরণের বাদ্য বাজনা করা যাবে না। আরতি প্রতিযোগিতা করা যাবে না। দশমীর র‍্যালী করা যাবে না। প্রত্যেক পূজা কমিটি নিশ্চিত করবে স্বাস্থ্যবিধি। মন্ডপের আকার অনুযায়ী নির্দিষ্ট সংখ্যক দর্শক একবারে প্রবেশ করতে পারবে। সেটা ঠিক করে দেবে ঐ পূজা কমিটি।

তিনি আরো বলেন, আমরা বাড়তি আয়োজন না করে যে অর্থ সাশ্রয় করছি, তা দিয়ে ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে করোনায় অভাবগ্রস্তদের সহায়তা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

তবে, কমছে না দুর্গা পূজার সংখ্যা। গতবছর ৬৬৮টি মন্ডপ ছিল বগুড়ায়। এখন পর্যন্ত সেই সংখ্যা প্রায় সমান। এর মধ্যে ১৬৪টিকে গুরুত্বপুর্ণ বলে চিহ্নিত করেছে প্রশাসন। বরাবরের মতোই নিরাপত্তার জন্য আছে পর্যাপ্ত ব্যবস্থা। পূজা কমিটিকে নিয়মগুলো মেনে চলার অনুরোধ করেছেন পুলিশ সুপার।

তিনি বলেন, আমরা সবাইকে অনুরোধ করেছি, যেহেতু করোনা কাল, তাই স্বাস্থবিধি মেনে চলার। কোনভাবেই যেন দশমীর র‍্যালী না হয় সেদিকে খেয়াল রাখার। এছাড়া বরাবরের মতো যথেষ্ট নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে আমাদের।

পরিবর্তিত পরিস্থিতি মেনে নিচ্ছেন হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা। কমিটির দেয়া নিয়মকানুন মেনে চলতে চান তারা। শহরের নারুলীর অধিবাসী পার্থ সরকার বলেন, যেহেতু কঠিন একটা সময় চলছে, আমরা পুজার সময় নিয়মনীতিগুলো মেনে চলব। নববৃন্দাবন হরিবাসর মন্দিরের পুরোহিত সুশীল কুমার মৈত্র বলেন, আমরা সব নিয়মই মানব। এখানকার যারা ভক্ত আছে, তাদেরকে ইতিমধ্যেই জানানো হয়েছে, প্রয়োজনে আবারো জানিয়ে দেব।

শুধু পূজা মন্ডপ নয়, আশেপাশে মেলা বা দোকানপাট বসার ক্ষেত্রেও দেয়া হবে নির্দেশনা। সামাজিক দূরত্ব যেন নিশ্চিত হয়, সেইভাবে সাজাতে হবে দোকানপাট।

- Advertisement -

আরও খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisement -

সর্বশেষ

বরিশালে বিয়ের ছয় দিনের পর স্বর্নালংঙ্কার নিয়ে পালালেন নববধূ

চার মাস প্রেম করার পর গত ১১ অক্টোবর ওই গৃহবধূ তার প্রথম স্বামীকে তালাক দিয়ে নাছেরের সঙ্গে পালিয়ে যান...

শিবগঞ্জে পিরব ইউনিয়ন কৃষক লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন

শনিবার বিকেলে বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার পিরব ইউনিয়ন কৃষকলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে...

বগুড়ায় ছেলে হত্যার বিচার চেয়ে আতঙ্কে বাবা!

তার করা হত্যা মামলার স্বাক্ষীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা করা হয়েছে। ওই মামলা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত...

জমির জন্যই ভাই-ভাবি-ভাতিজার লাশ গুম করেন দীন

জবানবন্দিতে দীন ইসলাম জমি নিয়ে পারিবারিক বিরোধের জেরে পূর্বপরিকল্পিতভাবে শাবল দিয়ে পিটিয়ে বড় ভাই আসাদুজ্জান খান, ভাবি পারভীন আক্তার ও ভাতিজা লিয়নকে হত্যা করে মরদেহ গুমের কথা স্বীকার করে

বগুড়ায় বাল্যবিয়ে করতে গিয়ে বরসহ ১৩ জন দণ্ডিত

শনিবার শিবগঞ্জ সদর ইউনিয়নের ধাওয়াগীর মিলকীপুর গ্রামে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে তাদের দণ্ডিত করা হয়।